স্টাফ রিপোর্টার, বান্দরবান: পার্বত্য জেলা বান্দরবানের শান্তি, সম্প্রীতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নে সব সময় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। ঠিক তেমন শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ২০২১ তারিখে সকাল ৯ টায় বান্দরবান সদরের টংকাবতী ইউনিয়নের চিম্বুক পাড়া এলাকায় জুমের কাজ করতে গিয়ে বন্য ভল্লুকের হামলায় আহত ব্যক্তিদের উন্নত চিকিৎসা সহ হেলিকপ্টার সহায়তা দিয়ে সেবা ও মানবিকতার এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

পাড়াবাসী জানান, বান্দরবান সদর উপজেলাধীন চিম্বুক পাহাড়ের স্থানীয় চিম্বুক পাড়া কারবারী (পাড়া প্রধান) ইয়াং ওয়াই ম্রো (৪২), পিতাঃ মৃত পাতুই ম্রো এবং মাংলিউ ম্রো (০৫), পিতাঃ রিং রাও ম্রো  জুম চাষ করার জন্য চিম্বুক পাহাড়ে যায়। পাহাড়ে জুম চাষ করা অবস্থায় তাদের উপর বন্য ভল্লুক আকস্মিক আত্রুমণ করলে উভয় গুরতর আহত হয়। মুমূর্ষু অবসহায় স্থানীয় জনগণ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে এলে বান্দরবান রিজিয়নের অধীনস্থ ৭ ফিল্ড এ্যাম্বুলেন্স কর্তৃক প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। আহত ব‍্যক্তির শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় বান্দরবান সেনা রিজিয়ন ও ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের  কমান্ডার  ব্রিগেডিয়ার জেনারেল  জিয়াউল হকের সার্বিক নির্দেশনায় মুমূর্ষু ম্রোদের উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারযোগে দুপুর ২ টায় চট্রগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে  প্রেরণ করা হয়।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী যে ম্রো জনগোষ্ঠীর তথা পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত সকল ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর যেকোন আপদকালীন সময়ে তাদের পাশে থেকে সর্বাত্মক সহায়তা প্রদান করে আসছে এটা তার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ভবিষ্যতেও ম্রো জনগোষ্ঠী তথা পার্বত্য এলাকার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পাশে থেকে তাদের জীবনমান উন্নয়ন এবং তাদের যে কোন প্রয়োজনে সর্বদা নিরলসভাবে কাজ করে যাবে।

খবরটি 148 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen