স্টাফ রিপোর্টার, বান্দরবান: বান্দরবানে সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে সফর করছেন সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ। অতি সম্প্রতি বান্দরবানে রুমা উপজেলায় রাতে ব্যাংকে ডাকাতি, ম্যানেজারকে অপহরণে, থানছি উপজেলায় দিন দুপুরে ২ টি ব্যাংকে ডাকাতি ও পরে সেনা চৌকিতে হামলা করে কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) সন্ত্রাসীরা। এসব ঘটনায় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রুমা ও থানচি উপজেলা পরিদর্শন করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। রবিবার (৭ এপ্রিল) সকাল ১০ টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে তিনি এসব এলাকা পরিদর্শন করেছেন। সেনাপ্রধানের সফরসূচি অনুযায়ী তিনি সেনাবাহিনীর বান্দরবান রিজিয়নের সিনিয়র অফিসারদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর বিশেষ কম্বাইন্ড অপারেশন বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রেস ব্রিফিং করেন। এ সময় বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের নির্মূলে কম্বাইন্ড অপারেশন’ শুরু হয়েছে এ বিষয়ে জানান।

            সেনাপ্রধান সাংবাদিকদের জানান, শান্তি আলোচনা শুরুর পর কেএনএফ সংগঠনের সদস্যরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে এ বিশ্বাস করেছিলাম। কিন্তু তারা যেহেতু বিশ্বাস ভঙ্গ করেছে। সুতরাং আর ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। বান্দরবানে বিচ্ছিন্নতাবাদী দমনে কম্বাইন্ড অপারেশন শুরু করেছে যৌথ বাহিনী। শান্তি আলোচনার আড়ালে কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িয়েছে। তারা তাদের উদ্দেশ্য জাহির করে ফেলেছে। আমরা সেনাবাহিনী, র‍্যাব ও পুলিশ সবাই মিলে সমন্বিতভাবে এ পরিস্থিতি মোকাবিলা করব। বান্দরবানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সক্ষম সেনাবাহিনী। তিনি আরো জানান, কিছু সন্ত্রাসীকে ধরতে বাহিনী সক্ষম হয়েছে। অভিযানে কিছু অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযান কতখানি কার্যকর হচ্ছে তা নিয়ে একটা ব্যাখ্যা দেন সেনাপ্রধান। আমি আপনাদের মাধ্যমে নিশ্চিত করতে চাই, বাংলাদেশের জনগণের শান্তির জন্য, বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের জন্য যা যা করণীয় প্রধানমন্ত্রীর কড়া নির্দেশ সেটা করতে হবে। সেটা বাস্তবায়নে আমরা সক্ষম হব দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

খবরটি 440 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen