আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সেক্রেটারিকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। পরে এ পদে দেশটির বৈদেশিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানকে নিয়োগ দিয়েছেন তিনি। গত মাসে পূর্ব ইউরোপের এ দেশটিতে সামরিক বাহিনীর হাইকমান্ডের পুনর্গঠনের পথ অনুসরণ করে সর্বশেষ এ রদবদল করা হলো। বুধবার (২৭ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

            রয়টার্স প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যান্ড ডিফেন্স কাউন্সিলের বিদায়ী সেক্রেটারি ওলেক্সি ড্যানিলভ ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে তার পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। মূলত ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি দায়িত্ব নেওয়ার কয়েক মাস পর এ পদে এসেছিলেন ড্যানিলভ। ড্যানিলভকে তার পদ থেকে অপসারণের কোনো কারণ দেননি জেলেনস্কি। কিন্তু তিনি বলেছেন, তিনি রাষ্ট্রের কৌশলগত ক্ষমতা জোরদার করার প্রত্যাশা করেছেন। ইউক্রেনকে শক্তিশালী করার কাজ এবং সকল ক্ষেত্রে আমাদের রাষ্ট্র ব্যবস্থার পুনর্নবীকরণ অব্যাহত থাকবে।

এদিকে বৈদেশিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান ৫১ বছর বয়সী ওলেক্সান্ডার লিটভিনেনকোকে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সেক্রেটারি পদে নিযুক্ত করেছেন জেলেনস্কি। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের অধীনে থাকা জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ দেশটির নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত বিষয়গুলোর ক্ষেত্রে সমন্বয়কারীর ভূমিকা পালন করে। ইউক্রেনের শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদদের পাশাপাশি নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা প্রধানদের নিয়ে এ পরিষদ গঠিত হয়ে থাকে।

            জেলেনস্কি তার রাতের ভিডিও ভাষণে বলেন, ড্যানিলভকে নতুন দায়িত্বে পাঠানো হচ্ছে। তবে সে বিষয়ে বিস্তারিত পরে প্রকাশ করা হবে। জেলেনস্কি বলেন, গোয়েন্দা প্রধান হিসাবে নিজের অভিজ্ঞতার আলোকে তার নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তি ইউক্রেনের নিরাপত্তা এবং প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে কাজ করবেন।

            এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ ভ্যালেরি জালুঝনিকে বরখাস্ত করেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। পরে এ পদে যুদ্ধ পারদর্শী জেনারেল অলেক্সান্ডার সিরস্কিকে নিয়োগ দেওয়া হয়।

খবরটি 331 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen