স্টাফ রিপোর্টার, বান্দরবান: যুব সমাজ ছাড়া আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মান কল্পনা করা যায়না। তাই দেশ এবং সমাজ উন্নয়নের কাজে যুবদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে হবে এমনটাই মনে করেন বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে হাবীবা মীরা। বান্দরবান পার্বত্য জেলার সরকারি কর্মকর্তা ও অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সাথে ইয়ুথ গ্রুপ ও নাগরিক প্লাটফর্মের পরামর্শ সভা অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

            প্রধান অতিথি বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে হাবীবা মীরা বক্তব্যে বলেন, দেশ ও সুস্থ সমাজ গঠনে যুবদের ভুমিকা অপরিসিম। যুব সমাজ ছাড়া আগামী স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মান কল্পনা করা যায়না। তাই দেশ এবং সমাজ উন্নয়নের কাজে যুবদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে হবে। সেবামূলক বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী সংস্থার সাথে যুবদের ভাল বন্ধন তৈরী করে দিতে হবে। যাতে সমাজের প্রান্তিক যুবসমাজ যে যেকোন ধরনের সমস্যায় পড়লে দ্রুত যোগাযোগ ও সমাধান করতে পারে। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পগুলো সরকারী এবং বেসরকারী সংস্থার সুন্দর সমন্বয়ের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করতে হবে। এতে যে ধরনের প্রকল্প হোকনা কেন তা সুন্দর ও সফল ভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে। এ ধরনের প্রকল্প অত্র এলাকায় বাস্তবায়নের জন্য তিনি গ্রাউস ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

            অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বান্দরবান জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মিলটন মুহুরী বলেন, যুব সমাজের জন্য এখন খুবই সু-সময়। বর্তমান সরকার যুবদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে।

            বান্দরবান সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা পুলুপ্রু মারমা বলেন, স্বাধীনতা সংগ্রামে যুবকরা সংঘবদ্ধ হয়ে যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছিল। সুতরাং বর্তমানেও যুবদের অংশগ্রহন ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই দেশের বেকার সমস্যা দুরীকরণে আগামীতে সরকারি ও বেসরকারি ভাবে যুবকরা যাতে হাতে কলমে শিক্ষা গ্রহন করতে পারে সে ধরনের প্রকল্প হাতে নেওয়া উচিত।

            সমাপনি বক্তব্যে অনুষ্ঠানের সভাপতি, নাগরিক প্লাটফর্মের যুগ্ন আহবায়ক এবং বান্দরবান প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক বলেন, বর্তমানে অত্র এলাকার যুবসমাজ নিয়ে আমরা খুবই উদ্ধিগ্ন। তাই প্রতিটি উপজেলায় যুব সমাজকে স্বচেতন করার জন্য কাজ করা দরকার। গ্রাউসের আস্থা প্রকল্পের মতো অন্যান্য সংস্থারও এগিয়ে আসা উচিত এ ধরনের কাজ করার জন্য। এতে জনগন স্বচেতন হবে, যুব সমাজ সুস্থ পথে ধাবিত হবে এবং এলাকায় শান্তি ও সম্প্রীতি ফিরে আসবে। তিনি অতিথিদেরকে, গ্রাউস ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সকলকে এবং উপস্থিত সবাইকে এ সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্যধন্যবাদ জানান।

            এ সভার শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গ্রাউসের উপ নির্বাহী পরিচালক চিন্ময় ম্রো। তিনি সভার উদ্দেশ্য এবং অত্র এলাকায় সহিংসতা প্রতিরোধ, সামাজিক সম্প্রিতি বজায় রাখার জন্য আগামীতে নাগরিক প্লাটফর্ম ও যুব সমাজ এবং সরকারী প্রশাসনের সমন্বয়ে কিভাবে কাজ করা যায় তার সম্ভাব্য দিকগুলো তুলে ধরেন।

            বান্দরবানে সরকারি কর্মকর্তা ও অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সাথে ইয়ুথ গ্রুপ ও নাগরিক প্লাটফর্মের পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সকাল ১০.০০ ঘটিকায় উজানী পাড়ায় গ্রাউসের প্রধান কার্যালয়ের সভাকক্ষে এ সভা আয়োজন করা হয়েছে। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গ্রাউসের “আস্থা প্রকল্পের” আয়োজনে এবং জাতীয় এনজিও রুপান্তর এর সহযোগিতায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথি বরন, আসন গ্রহন ও পরিচয় পর্বের পরে মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে প্রকল্পের অগ্রগতি এবং বান্দরবান পার্বত্য জেলার চলমান কিছু ঘটনা প্রবাহের চিত্র তুলে ধরেন প্রকলের জেলা সমন্বয়ক থোয়াইঅং মারমা।

            বান্দরবান পার্বত্য জেলার সরকারি কর্মকর্তা ও অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সাথে ইয়ুথ গ্রুপ ও নাগরিক প্লাটফর্মের পরামর্শ সভায় সভাপতিত্ব করেন নাগরিক প্লাটফর্মের যুগ্ন আহবায়ক এবং বান্দরবান প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে হাবীবা মীরা। বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মিলটন মুহুরী ও বান্দরবান সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা পুলুপ্রু মারমা। আস্থা প্রকল্পের জেলা সমন্বয়ক থোয়াইঅং মারমার সঞ্চালনায় শুরু হওয়া উক্ত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন নাগরিক প্লাটফর্মের সদস্য ক্যহ্লাউ চৌধুরী, এডভোকেট উবাথোয়াই মারমা এবং মহীলা বিষয়ক অধিদপ্তর এর প্রতিনিধি এটিএম শফিউল। এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন এসএ টিভি বান্দরবান প্রতিনিধি ঊশি থোয়াই মারমা, দৈনিক পাহাড় বার্তা প্রতিনিধি কৌশিক দাশ, বান্দরবান থানার এসআই সমর বড়ুয়া, এডভোকেট মেনু সাং মারমা, বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত সুশীল সমাজ, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং নাগরিক প্লাটফর্ম ও ইয়ুথ গ্রুপের সদস্যবৃন্দ।

খবরটি 341 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen