বিশেষ খবর ডেস্ক: বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নে মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টারশেলের আঘাতে বাংলাদেশি নারীসহ ২ জন নিহত হয়।  জলপাইতলী গ্রামের নিহত হোসনে আরা বেগম (৪৫) ও নবী হোছেন (৭০)। সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঘুমধুম ইউনিয়নের জলপাইতলী এলাকায় মর্টারশেলের আঘাতে এ ঘটনা ঘটেছে। অপর দিকে গত রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় এ ইউনিয়নে তুমব্রু সীমান্তে তুমব্রু ক্যাম্প পাড়া এলাকায় গোলাগুলিতে ৩ জন আহত হয়। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত কোনার পাড়ার বাসিন্দা প্রবীর চন্দ্র ধর (৬৫)।  আরো আহত ২ জন রহিমা বেগম (৪০) ও শামসুল আলম। এদিকে গোলাগুলি কারনে তুমব্রু সীমান্তের ৩ টি গ্রাম এখনো মানুষ শূন্য রয়েছে। কোনার পাড়া, মাঝের পাড়া, বাজার পাড়া এলাকার বাসিন্দারা নিজ গ্রাম ছেড়ে আত্মীয় স্বজনের বাসায় চলে যায়। চলমান অস্থিরতায় ঘুমধুম ৬ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

            নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি আব্দুল মান্নান জানান, তুমব্রু সীমান্ত এলাকায় মর্টারশেলের আঘাতে ২ জন নিহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত ১ জনসহ ৩ জন আহত হয়।

            জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন বলেন, সীমান্তে যাতে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সীমান্তে নজর রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

            মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর সাথে বিদ্রোহী আরাকান আর্মীর যুদ্ধ চলছে। নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ওপারে হেলিকপ্টার থেকে গুলিবর্ষণ করছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।

খবরটি 486 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen