স্টাফ রিপোর্টার, বান্দরবান: বান্দরবানে পার্বত্য জেলায় তৃণমূল পর্যায়ে শান্তি সম্প্রীতি রক্ষা, সন্ত্রাসমুক্ত একটি সহনশীল ও অহিংস সমাজ গঠনে যুব ও নাগরিকদের সম্পৃক্ত করতে নাগরিক প্লাটফর্ম গঠন সভা অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় যুবনীতি ২০১৭ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে “আস্থা প্রকল্পের” কার্যক্রম জেলা পর্যায়ে বাস্তবায়ন করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গ্রাউস। বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ১১ ঘটিকায় “আস্থা” প্রকল্পের আয়োজনে গ্রাউস প্রধান কার্যালয় সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সভা শেষে উপস্থিত সকলের সম্মতিক্রমে বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও পরিবেশবাদী জুয়াম লিয়ান আমলাই‘কে আহ্বায়ক এবং জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অংচমং মারমা ও বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক‘কে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ৩০ সদস্য বিশিষ্ট জেলা পর্যায়ে নাগরিক প্লাটফর্ম গঠন করা হয়। যুব সমাজের উন্নয়নে লক্ষ্যে বাস্তবায়নাধীন গ্রাউসের উক্ত প্রকল্পের সাথে সম্পৃক্ত হতে পেরে খুব সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন আহবায়ক জুয়াম লিয়ান আমলাই ও উপস্থিত নব গঠিত নাগরিক প্লাটফর্মের সদস্যরা।

            আস্থা প্রকল্পের ফিল্ড অফিসার জনাব দীপু তঞ্চঙ্গ্যা এর সঞ্চালনায় শুরু হওয়া উক্ত সভায় প্রথমে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গ্রাউসের উপ-নির্বাহী পরিচালক জনাব চিন্ময় মুরুং। পরে মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে প্রকল্পের লক্ষ্য উদ্দেশ্য ও জেলা নাগরিক প্লাটফর্মের দায়িত্ব ও কর্তব্য কি হবে তা সার্বিক দিক তুলে ধরেন প্রকল্পের জেলা সমন্বয়ক জনাব থোয়াইঅং মারমা। পরে অংশগ্রহনমূলক আলোচনায় সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক, উন্নয়নকর্মী, আইনজীবি, জন প্রতিনিধি, কারবারী ও হেডম্যান প্রতিনিধিরা তাদের যার যার মতামত ব্যক্ত করেন এবং এ ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য গ্রাউসকে ধন্যবাদ জানান।

            অংশগ্রহণমূলক আলোচনার এক পর্যায়ে বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও পরিবেশবাদী জুয়ামলিায়ান আমলাই বলেন, যে উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য নিয়ে এ নাগরিক কমিটি গঠন করা হচ্ছে। বিশেষ করে শান্তি সম্প্রীতি ও অহিংস সমাজ গঠনে যুবদের সম্পৃক্ত করার কথা বলা হচ্ছে। সেটা বাস্তবায়ন করা আসলে কঠিন। তবে আমরা যদি সকল সম্প্রদায় মিলেমিশে কাজ করি অবশ্য আমরা সফল হবো। তাই এ ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য গ্রাউসকে ধন্যবাদ জানায়।

            উক্ত সভায় বান্দরবান প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জনাব মিনারুল হক বলেন, আমি মনে করি অত্র এলাকায় আস্থা প্রকল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি এবং নাগরিক প্লাটফর্মের সবাই এক সাথে কাজ করতে পারলে অবশ্যই দক্ষ ও সূশিক্ষিত যুবসমাজ গঠন করা সম্ভব। দেশে শান্তি সম্প্রীতি বজায় রাখার পরিবেশ সৃষ্টি হবে।

            বিশিষ্ট নাট্যকর্মী ক্যসামং মারমা বলেন, আজকে বান্দরবান জেলায় যে নাগরিক প্লাটফর্ম গঠন হলো আমি মনে করি যে, এ কমিটির মাধ্যমে আমাদের যুবসমাজ ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী অবশ্যই উপকৃত হবে। কারণ এ কমিটিতে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক, উন্নয়নকর্মী, আইনজীবি, জন প্রতিনিধি, কারবারী ও হেডম্যান প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সংগঠনের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ব্যক্তিরা সম্পৃক্ত আছেন।

            সমাপনী বক্তব্যে অনুষ্ঠানের সভাপতি এবং গ্রাউসের চেয়ারপার্সন মংথুইচিং মারমা বলেন, কর্ম এলাকায় তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠিত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা, সন্ত্রাসমুক্ত একটি সহনশীল ও অহিংস সমাজ গঠনে যুবদের সম্পৃক্ত করে যুব নেতৃত্ব বিকাশে আমাদের সম্পৃক্ত হওয়া দরকার। এতে বয়স্ক ও যুবদের মেলবন্ধন তৈরির মাধ্যমে অংশগ্রহণমূলক সমাজ গঠন করা এবং সমাজ ও দেশের উন্নয়নে যুবদের সম্পৃক্ত করণে উদ্যোগ সৃষ্টিতে উক্ত “আস্থা” প্রকল্পটি অত্র এলাকায় বিশেষ ভুমিকা রাখতে পারবে। এছাড়া প্রান্তিক এলাকায় পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর নাগরিক অধিকার বঞ্চিতদের সরকারি বেসরকারি সুযোগ সুবিধা পাওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বয়ের মাধ্যমে সহায়তা করা হবে এবং আস্থা প্রকল্প বাস্তবায়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

খবরটি 360 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen