স্বাস্থ্য ডেস্ক: আমাদের হাতের কাছে প্রকৃতি বিভিন্ন উপকারী খাবার সাজিয়ে রেখে দিয়েছে। শুধু সে খাবারগুলো প্রতিদিনের ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। আর তাতে একাধিক অসুখ এড়িয়ে চলা সম্ভব। আর এমন সব উপকারী খাবারের তালিকায় একদম উপরের দিকে আসবে অঙ্কুরিত ছোলার নাম। পুষ্টিবিজ্ঞানীদের মতে, অঙ্কুরিত ছোলা হলো পুষ্টির ভাণ্ডার। এ খাবারে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালোরি, প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বন, ফাইবার, ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম, ফোলেট, ম্যাগনেশিয়াম, বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামন কে মতো একাধিক জরুরি উপাদান। তাই নিয়মিত অঙ্কুরিত ছোলা খেলে রোগ বালাই কাছে ঘেঁষার সুযোগ পায় না। তাই আর দেরি না করে এ খাবারের একাধিক চমকে দেওয়া উপকার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। আশা করছি এ প্রতিবেদনটি শেষ পর্যন্ত পড়ার পর আপনিও অঙ্কুরিত ছোলার প্রেমে পড়ে যাবেন।

            ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখে: ডায়াবেটিসকে ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণে না রাখতে পারলে একাধিক জটিল সমস্যা পিছু নেয়। এক্ষেত্রে ক্রনিক কিডনি ডিজিজ, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক ও পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথিসহ ভয়ংকর সব রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। তাই ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হয়। আর এ কাজে আপনার বন্ধু হতে পারে অঙ্কুরিত ছোলা। রোজ সকালে এক বাটি অঙ্কুরিত ছোলা খেলে দেহে ইনসুলিনের কার্যকারিতা বাড়বে। ফলে প্রত্যক্ষভাবে সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে অনেকটা সুবিধা মিলবে ইতিমধ্যে জানিয়ে রেখেছেন বিশেষজ্ঞরা।

            মিটবে পেটের সমস্যা​: গ্যাস, অ্যাসিডিটি ও বদহজম থেকে শুরু করে একাধিক পেটের সমস্যা প্রশমিত করতে অঙ্কুরিত ছোলার কোন জুড়ি নেই। আসলে এ খাবারে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ইনসলিউবল ফাইবার। আর এ ফাইবার অন্ত্রে ভালো ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বাড়ানোর কাজে সিদ্ধহস্ত। ফলে খাবার হজম হবে খুব সহজে। আর এ কারণে বদহজম, গ্যাস ও অ্যাসিডিটির মতো পেটের সমস্যার ফাঁদ এড়িয়ে চলা সম্ভব হবে।

            হৃদরোগ কাছে ঘেঁষতে পারবে না: হার্ট হলো শরীরের পাম্প। এ অঙ্গটি গোটা শরীরে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পৌঁছে দেওয়ার কাজটি করে। তাই এ অঙ্গের সুস্থ থাকাটা খুব জরুরি। তবে বর্তমান জীবনযাত্রা ও খাদ্যাভ্যাসের সাঁড়াশি আক্রমণে এ অঙ্গের ওপর আঘাত হানছে একাধিক প্রাণঘাতী অসুখ। তাই হৃদরোগ নিয়ে অবশ্য সতর্ক থাকতে হবে। রোজ সকালে অঙ্কুরিত ছোলা খেলে রক্তে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা অনেকটা হ্রাস পাবে। ফলে হৃদরোগের প্রকোপে পড়ার আশঙ্কা কমবে।

            প্রোটিনের খনি: অঙ্কুরিত ছোলা কিন্তু প্রোটিনের ভাণ্ডার। তাই দেহে প্রোটিনের ঘাটতি মেটানোর কাজে অঙ্কুরিত ছোলার কোনো জুড়ি নেই। এক্ষেত্রে সারাদিনে মাত্র এক বাটি অঙ্কুরিত ছোলা খেলে অনেকটা পরিমাণে প্রোটিন মিলবে। আর দেহে প্রোটিনের ঘাটতি মিটে গেলে পেশির জোর বাড়বে। এমনকি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে। তাই প্রোটিনের ঘাটতি মেটাতে চাইলে নিয়মিত অঙ্কুরিত ছোলা খাওয়ার কথা ভুলবেন না।

            সাবধানে খেতে হবে​: অনেকক্ষণ ধরে ছোলা ভিজিয়ে রাখার পর অঙ্কুর তৈরি হয়। তবে বহু ক্ষেত্রে এ কাজটি করতে গিয়ে বেশ কিছু রোগ-জীবাণু এ খাবারে বংশবিস্তার করার সুযোগ পয়ে যায়। তাই খুব সতর্ক হয়ে ছোলা ভেজাতে হবে। আর অঙ্কুরিত ছোলা খাওয়ার আগে অবশ্যই ভালো করে ধুয়ে নেওয়া দরকার। এর মাধ্যমে সংক্রমণের আশঙ্কা এড়িয়ে যেতে পারবেন। এইটুকু কাজ করলে সুস্থ থাকবে শরীর।

খবরটি 592 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen