শিক্ষা ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনার কারণে আমাদের শিক্ষার্থী, শিক্ষক অন্যান্য কর্মচারীরা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে এই ব্যবস্থাগুলো আমরা নিতে বাধ্য হয়েছি। অনেকেই সমালোচনা করেন। কিন্তু ক্লাস পরীক্ষা এগুলো করতে যেয়ে কেউ যদি আক্রান্ত হয়। তাহলে তার দায় দায়িত্ব কে নেবে? যারা সমালোচনা করেন এই পদ্ধতিতে রেজাল্ট দেওয়ার কারণে তারা নেবেন দায়িত্ব? শনিবার (৩০ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ ও হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,  দায় নিশ্চয়ই তারা নেবেন না। আবার নতুনভাবে সমালোচনা করবেন। এটাই আমাদের সবচেয়ে দুর্ভাগ্য যে কিছু করতে গেলেই এর মধ্যে একটা খুঁত ধরা। কিন্তু এর ফলাফল কি হবে সেটা তারা চিন্তা করেন না। আমি ধন্যবাদ জানাই শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে তারা অন্তত একটা রেজাল্ট দিতে পেরেছে। তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা ভালো থাকুক সেটা আমরা চাই। তাছাড়া এখন আরও আধুনিক প্রযুক্তি বেরিয়েছে। সেগুলো ব্যবহার করে আমরা আমাদের জীবনমান উন্নত করবো। আগে আমাদের দেশে কেউ এক বিষয়ে ফেল করলে পরের বছর সবগুলো বিষয়ে আবারও পরীক্ষা দিতে হতো। ১৯৯৬ সালে আমরা ক্ষমতা গ্রহণ করে সেই ব্যবস্থার পরিবর্তন করেছি। এক বিষয়ে ফেল করার কারণে একজন শিক্ষার্থীর এক বছর নষ্ট হবে কেন। এই পদ্ধতি চালু হওয়ার পরও অনেকে সমালোচনা করেছেন কিন্তু এখন এর ফলাফল এখন ভালোই হচ্ছে। আজকে আমরা যে রেজাল্ট দিলাম সেটাও শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে।

খবরটি 210 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen