অর্থনীতি ডেস্ক: বাংলাদেশসহ অনেক উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশ লেনদেনের খরচ কমাতে নয়াদিল্লির সাথে ভারতীয় মুদ্রা রুপিতে বাণিজ্য করতে চায় জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী পীযূষ গয়াল। সোমবার দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

            ভারতের এ মন্ত্রী বলেছেন, ইতিমধ্যে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা আমাদের সাথে কথা বলছে এবং তারা চায় আমরা অবিলম্বে এটা শুরু করি। উপসাগরীয় অঞ্চলের অন্যান্য দেশ সেদিকে তাকিয়ে আছে। আমি মনে করি, মানুষের উপকার হয় কি না সেটি দেখার জন্য কিছু সময় লাগবে। এরপর আমাদের এ লেনদেন ব্যবস্থায় আরও কিছু উন্নত ও দূরপ্রাচ্যের দেশ যোগ দেবে। তিনি বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ধীরে বুঝতে পারছে যে, দেশীয় মুদ্রায় ব্যবসার বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে। এর আগে, গত বছরের ডিসেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) কাছ থেকে অপরিশোধিত তেল কেনার সময় ভারতীয় রুপিতে প্রথমবারের মতো অর্থ পরিশোধ করে ভারত। ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক (আরবিআই) আমদানিকারকদের ভারতীয় রুপিতে অর্থ প্রদানের অনুমতি দেওয়ার এক বছর পর এ লেনদেন হয়। এ পদক্ষেপ ভারতের স্থানীয় মুদ্রায় বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

            ২০২২ সালের জুলাইয়ে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) ভারতের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য রুপিতে নিষ্পত্তির অনুমতি দেয়। সে অনুযায়ী, অনুমোদিত ভারতীয় ব্যাংকগুলো অংশীদার বাণিজ্যিক দেশের ব্যাংকগুলোকে বিশেষ রুপি ভস্ত্রো অ্যাকাউন্ট খোলার অনুমতি দেয়। এ ঘটনার পর থেকে বিশ্বের অন্তত ২২ টি দেশের বিভিন্ন ব্যাংক স্থানীয় মুদ্রায় বাণিজ্যিক লেনদেন সম্পন্ন করার জন্য ভারতীয় ব্যাংকগুলোতে বিশেষ রুপি ভস্ত্রো অ্যাকাউন্ট খুলেছে। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ, বেলারুশ, বতসোয়ানা, ফিজি, জার্মানি, গায়ানা, ইসরায়েল, কেনিয়া, মালয়েশিয়া, মরিশাস, মিয়ানমার, নিউজিল্যান্ড, ওমান, রাশিয়া, সিচেলিস, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, তানজানিয়া, উগান্ডা, মালদ্বীপ, কাজাখস্তান এবং যুক্তরাজ্য।

সূত্র: পিটিআই।

খবরটি 356 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen