খেলা ডেস্ক: বান্দরবানে শেখ কামাল ২য় যুব গেমস-২০২৩ এর চট্টগ্রাম বিভাগীয় পর্যায়ের আন্ত:জেলার কারাতে প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) সকাল ৯ টায় জেলা সদরের হিলভিউ কনভেনশন সেন্টারের আন্ত:জেলা কারাতে প্রতিযোগীতা আয়োজন করা হয়েছে। এ প্রতিযোগীতা আয়োজন করে বাংলাদেশ অলম্পিক এসোসিয়শন ও ব্যবস্থাপনায় বান্দরবান জেলা ক্রীড়া সংস্থা। এ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপস্থিতি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার ও চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ড. মো: আমিনুর রহমান। বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক,  শেখ কামাল ২য় যুব গেমস চট্টগ্রাম বিভাগীয় কারাতে ইভেন্টের প্রধান সমন্বয়ক ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈ হ্লা মারমা।

            শেখ কামাল যুব গেমস দিনব্যাপী কারাতে প্রতিযোগীতায় চট্টগ্রামের খেলোয়াড়রা ৪টি গোল্ড, ৬টি সিলভার ও ৮টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। বান্দরবানে খেলোয়াড়রা ৪টি গোল্ড, ৪টি সিলভার ও ৩টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। রাঙামাটির খেলোয়াড়রা ২টি গোল্ড ও ১টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। নোয়াখালীর খেলোয়াড়রা ৪টি গোল্ড, ৪টি সিলভার ও ৪টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। কক্সবাজারের খেলোয়াড়রা ১টি গোল্ড, ও ২টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। কুমিল্লার খেলোয়াড়রা ১টি গোল্ড, ২টি সিলভার ও ১২টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে। ফেনীর খেলোয়াড়রা ১টি ব্রোঞ্জ জয়লাভ করে।

            আন্ত:জেলা কারাতে প্রতিযোগীতায় বিজয়ী হয়ছেন একক কাতায় প্রথম স্থান অধিকার করে বান্দরবানের সিংখিউ মারমা ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর মহরম আলী। একক কাতায় প্রথম স্থান অধিকার করে বান্দরবানের রুই তুম ম্রো ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে বান্দরবানের শোনায় ম্রো। একক কাতায় +৭৫ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে কক্সবাজারের সাঈদ মোহাম্মদ ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর মুসা বিন আরিফ।

কুমিতে -৪০ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর নাজিফা আঞ্জুম ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে কুমিল্লার সুইটি আক্তার।

কুমিতে -৪৫ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে রাঙামাটির অমিত কান্তি চাকমা ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামে মোসাফিকুজ্জামান।

কুমিতে -৪৫ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর সাবিহা জাহান ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের সৈরন্তী দত্ত।

কুমিতে -৫০ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামে রিদয়ানুল আরেফিন ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে কুমিল্লার মো: প্রবাসী।

কুমিতে -৫৫ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর মহরম আলী ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে বান্দরবানের রেংহিং ম্রো।

কুমিতে -৫৫ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে বান্দরবানের রুইতুম ম্রো ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর নাদিয়া সুলতানা।

কুমিতে -৬০ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে বান্দরবানের সিংক্যউ মারমা ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে মাং পং ম্রো।

কুমিতে -৬১ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে কুমিল্লার নাহিদা আক্তার ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের অন্বেষা দে।

কুমিতে -৬৭ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে রাঙামাটির সুদর্শন বিকাশ চাকমা ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে নোয়াখালীর আল মুয়িত।

কুমিতে -৬৮ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের সমুদ্রা মজুমদার ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের উমা চৌধুরী।

কুমিতে +৬৮ কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামে ঈশা ধর ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে কুমিল্লার ফারিয়া বিনতে ফারুক।

কুমিতে -৭৫ কেজিতে কেজিতে প্রথম স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামে আল আরাবি রাফি ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের জারিফ কবির।

            বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি। এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সাবেক সহ সভাপতি মো. শাহাজাদা আলম ও বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সহ সভাপতি মো: ইকবাল হোসেন।

খবরটি 415 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen