তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক: ডিজিটাল ভূমি সেবাকে স্মার্ট ভূমি সেবায় রূপান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে ভূমি মন্ত্রণালয়। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার অংশ হিসেবে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর নির্দেশে এই কার্যক্রম শুরু করা হয়। এ ছাড়া ক্রয়, হেবা সূত্রে হস্তান্তরকৃত জমি নামজারি আবেদন নির্ভুলভাবে পুরণের সুবিধার্থে ফরম আপডেট করা হয়েছে। চলতি মাসের মধ্যে এই স্মার্ট ব্যবস্থা পুরোপুরি চালু করা হবে। ভূমি বিষয়ক প্রযোজ্য সরকারি তথ্য ও ডাটা সকলের কাছে উন্মুক্তকরণের মাধ্যমে ভূমি প্রশাসনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে এবং গুণগত মান বৃদ্ধি পাবে। এই ক্ষেত্রেও ই নামজারিকেই প্রথমে বাছাই করা হয়েছে। ভবিষ্যতে প্রয়োজনে আরও ডাটা উন্মুক্ত করা হবে। তবে জাতীয় এবং ব্যক্তি নিরাপত্তা হুমকির সম্মুখীন হয় এমন তথ্য কিংবা ডাটা কখনো উন্মুক্ত করা হবে না। জানা গেছে, জাতীয় ভূমি সেবা কাঠামো www.land.gov.bd এ প্রবেশ করে ই নামজারি ট্যাবে ক্লিক করলেই বিগত ৯০ দিনের জাতীয়, বিভাগ ও জেলাওয়ারি ই নামজারি আবেদনের সংখ্যা, মঞ্জুরের হার ও গড় নিষ্পত্তি দেখা যাবে।

            ভূমি মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ভূমি সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমানের তত্ত্বাবধানে ডিজিটাল ও স্মার্ট ভূমি সেবা কার্যক্রমে পরীক্ষামূলকভাবে ই নামজারি পদ্ধতি স্মার্ট করার পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে প্রশ্ন ভিত্তিক গাইডেড স্মার্ট ই নামজারি ফরম ডিজাইন করা হয়েছে। অনলাইনে নামজারি আবেদনের সময় সরকারের সার্ভারে রক্ষিত প্রযোজ্য ডাটা (উপাত্ত) ও ফাইল আপলোড হওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর ফলে আবেদনকারী ই নামজারি ফরম আরও দ্রুত সময়ে সহজে পূরণ করতে পারবেন। আপডেটকৃত সিস্টেমে প্রতিষ্ঠান, কোম্পানি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির জন্য আলাদা আলাদা নামজারি ফরমের ব্যবস্থা রয়েছে। ভূমি প্রশাসনে সুশাসন নিশ্চিত করা এবং ভূমি সেবা অধিকতর গণমুখি করার জন্য ভূমি সেবা সম্পর্কিত প্রযোজ্য সরকারি তথ্য উন্মুক্ত করারও উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এ ছাড়া নিজ আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা দেখার সুযোগ রয়েছে। ইতিপূর্বে ভূমি মন্ত্রণালয় ই নামজারি ব্যবস্থার জন্য মর্যাদাপূর্ণ ইউনাইটেড ন্যাশনস পাবলিক সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড-২০২০ অর্জন করেছে।

খবরটি 105 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen