স্টাফ রিপোর্টার, বান্দরবান: বান্দরবানের চিম্বুকে ফাইভ স্টার হোটেল ও পর্যটন স্থাপনা নির্মাণের পক্ষে মানববন্ধন করে আদিবাসী ম্রো জনগোষ্ঠী। মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বেলা ১২টায় জেলা শহরে বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চ প্রাঙ্গণে ম্রো সম্প্রদায়ের ব্যানারে মানববন্ধন করা হয়েছে। মানববন্ধনের ব্যানারে লেখা রয়েছে, সেনাবাহিনী এবং ম্রো সম্পর্কের অপর নাম সহযোগিতার সেতু বন্ধন, পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন ও সম্প্রীতি বন্ধনে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি। এ মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে যোগ দেয় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ।

            মানববন্ধনের সময় বিভিন্ন প্লেকার্ড প্রনদর্শ করা হয়। প্লেকার্ডে লেখা রয়েছে, ম্রো-সেনাবাহিনীর সম্পর্কের অপপ্রচার কাধঁ কাধঁ মিলিয়ে প্রতিহত করি, সেনাবাহিনী-ম্রো এক হয়ে সন্ত্রাসবাদ রুখে দেই, পাহাড়ে হোক পর্যটন ম্রোদের হোক উন্নয়ন, নিজেদের জীবিকা নিজে করি প্রশ্ন কেন উচ্ছেদের, মিলিত উদ্যোগেই হবে উন্নয়ন উচ্ছেদের নেই কোন প্রয়োজন, নিজেকে চিনি দেশকে জানি পর্যটনের মাধ্যেমে বান্দরবানকে উন্নয়ন করি, পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন সমগ্র উপজাতীয়দের উন্নয়ন।

            এ মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে যোগ দেন প্রাক্তন চেয়ারম‍্যান অংলাই ম্রো, হেডম‍্যান মেনরত ম্রো, স্থানীয় ম্রো নেতা ইয়ুংলক, মেনদং কমান্ডার। আরো সংহতি প্রকাশ করে যোগ দেয় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী মজিবর রহমান ও কয়েকজন নেতা।

            এরআগে গত ৮ নভেম্বর বান্দরবানে চিম্বুক পাহাড়ের নীলগিরি এলাকায় ম্রোদের জীবন জীবিকার ভূমি বেদখল করে সিকদার গ্রুপের পর্যটন মেরিয়ট হোটেল অ্যান্ড অ্যামিউজমেন্ট পার্ক নামে ফাইভ স্টার হোটেল নির্মাণ উদ্যোগের প্রতিবাদে কালচারাল শোডাউন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে আদিবাসী ম্রো জনগোষ্ঠী। এই পর্যটন ও পাঁচ তারকা হোটেলের ফলে ৭০ থেকে ১১৬টি পাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হবে এলাকার ম্রো জনগোষ্ঠীর আশঙ্কা। এ পর্যটন স্থাপনা তৈরী হলে পাড়াগুলোর মধ্যে ১০ হাজারের মতো জুমচাষী উদ্বাস্তু হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়।

খবরটি 231 বার পঠিত হয়েছে


আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Follow us on Facebookschliessen
oeffnen